ঢাকা বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১১, ২০২২
রাজবাড়ীতে শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা
  • আসাদুজ্জামান নুর
  • ২০২২-০৮-০৬ ০০:৫৭:২৯
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে গতকাল ৫ই আগস্ট বিকালে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা শেষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় -মাতৃকণ্ঠ।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে গতকাল ৫ই আগস্ট বিকালে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। 
  জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী, সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শেখ সোহেল রানা টিপু, সাবেক সহ-সভাপতি এডঃ গণেশ নারায়ণ চৌধুরী, হেদায়েত আলী সোহ্রাব, প্রফেসর ফকরুজ্জামান মুকুট, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অসীম কুমার পাল, সাবেক উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ইঞ্জিঃ মোঃ আমজাদ হোসেন, সাবেক সদস্য আব্দুস সালাম মন্ডল, রাজবাড়ী পৌর আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম সফি, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মূলঘর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ ওয়াহিদুজ্জামান ওহিদ, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি মীর মাহফুজা খাতুন মলি, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোঃ হাফিজুর রহমান হাফিজ ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক আবুল হোসেন শিকদার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। সভা সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এডঃ সফিকুল হোসেন সফিক। 
  সভাপতির বক্তব্যে সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম শেখ কামালের স্মৃতিচারণ করে বলেন, আমি একদিন ঢাকা ইউনিভার্সিটিতে গেছি। গিয়ে দেখি কলা ভবনের সামনে একজন বাদামওয়ালার গলা জড়িয়ে ধরে গান করছেন। সেই মানুষটি হলো শেখ কামাল। তিনি একজন জনপ্রিয় ও মিশুক মানুষ ছিলেন। তার কাছে কোনো ভেদাভেদ ছিল না। তিনি যে প্রধানমন্ত্রীর পুত্র ছিলেন তা কখনও জাহির করেননি। তিনি একাধারে খেলোয়াড় ও ক্রীড়া সংগঠক ছিলেন। আবাহনী ক্রীড়া চক্র গড়ে তুলেছিলেন। অথচ তাকে নিয়েও একসময় অপপ্রচার চালানো হয়েছিল। 
  সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে যেকোনো ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় দলীয় নেতাকর্মীদের ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোর কমিটি হয়ে যাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 
  রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী বলেন, শেখ কামাল ছিলেন ক্ষণজন্মা একজন মানুষ। তিনি একাধারে ক্রীড়া সংগঠক ও ক্রীড়াবিদ ছিলেন। সেই সাথে ভালো গান গাইতেন। স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। নিরহংকার মানুষ ছিলেন। 
  তিনি আরও বলেন, আগস্ট মাস আসলেই ষড়যন্ত্রকারীরা তৎপর হয়ে ওঠে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করতে। ষড়যন্ত্রকারীরা উঠে-পড়ে লেগেছে সরকারকে উৎখাত করার জন্য। আমাদের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে তাদেরকে প্রতিহত করতে হবে। শেখ হাসিনার হাত ধরে বাংলাদেশের যে উন্নয়ন হয়েছে বিগত কোনো সরকার তা করতে পারে নাই। শেখ হাসিনার হাতে দেশ যতটা নিরাপদ, অন্য কোনো সরকারের হাতে ততটা নিরাপদ নয়। তাই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।
  আলোচনা সভার শেষে শেখ কামালসহ ১৫ই আগস্টের শহীদদের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া করা হয়। দোয়া পরিচালনা করেন আটাশ কলোনী জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা সেলিম দেওয়ান।

রাজবাড়ী পাসপোর্ট অফিস এলাকায় দালাল চক্র সক্রিয়॥১জনকে মারপিট
রাজবাড়ীতে প্রয়াত এডঃ রফিকুস সালেহীনের স্মরণে সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত
পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাজবাড়ীতে আঞ্জুমান-ই-কাদেরীয়ার উদ্যোগে বিশাল শোক র‌্যালী
সর্বশেষ সংবাদ