ঢাকা বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪
রাশিয়ার কনসার্ট হলে হামলার ঘটনায় জাতিসংঘ মহাসচিবসহ বিশ্ব নেতাদের নিন্দা
  • আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • ২০২৪-০৩-২৩ ১৬:২৬:০৫

জাতিসংঘ মহাসচিব এবং নিরাপত্তা পরিষদ গত শুক্রবার মস্কোর উপকণ্ঠে একটি কনসার্ট হলে ভয়াবহ বন্দুক হামলার ‘কঠোর’ নিন্দা জানিয়েছেন এবং ‘সন্ত্রাসী’ হামলায় নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।
 জাতিসংঘের মুখপাত্র ফারহান হক এক বিবৃতিতে বলেছেন, জাতিসংঘ প্রধান অ্যান্তোনিও গুতেরেস ‘মস্কোর বাইরে একটি কনসার্ট হলে আজকের সন্ত্রাসী হামলার সম্ভাব্য সবচেয়ে জোরালো ভাষায় নিন্দা করেছেন। হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৩জন দাঁড়িয়েছে এবং ১৪০জনের বেশি আহত হয়েছে’।
 মহাসচিব গুতেরেস ‘শোক সন্তপ্ত পরিবার ও জনগণ এবং রাশিয়ান ফেডারেশনের সরকারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।’ তিনি এতে রাশিয়ার আনুষ্ঠানিক নাম উল্লেখ করেছেন।
 নিরাপত্তা পরিষদ এ ঘটনায় সমবেদনা জানিয়েছে এবং ‘সন্ত্রাসবাদের এই নিন্দনীয় কর্মকান্ডের অপরাধীদের এবং মদদদাতাদেরকে জবাবদিহি করতে এবং তাদের বিচারের আওতায় আনার জন্য’ সমস্ত রাষ্ট্রকে ‘রাশিয়ান ফেডারেশনের সরকার, সেইসাথে অন্যান্য সমস্ত প্রাসঙ্গিক কর্তৃপক্ষের সাথে সক্রিয়ভাবে সহযোগিতা করার’ আহ্বান জানিয়েছে।
 তাদের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা এই জঘন্য ও কাপুরুষোচিত সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।’
 ইসলামিক স্টেট গ্রুপ গত শুক্রবার এই হামলার দায় স্বীকার করে টেলিগ্রামে এক বিবৃতিতে বলেছে, তাদের যোদ্ধারা মস্কোর উপকণ্ঠে ‘একটি বিশাল সমাবেশে’ হামলা চালিয়ে ‘নিরাপদে তাদের ঘাঁটিতে ফিরে গেছে।’
 এদিকে ছদ্মবেশী ইউনিফর্ম পরিহিত হামলাকারীরা একটি রক কনসার্ট শুরুর আগে ক্রোকাস সিটি ভেন্যুতে প্রবেশ করে গুলি চালায় এবং একটি গ্রেনেড বা অগ্নিসংযোগকারী বোমা নিক্ষেপ করে। ঘটনাস্থলে প্রত্যক্ষদর্শী রিয়া নভোস্তি সংবাদ সংস্থার একজন সাংবাদিক একথা জানিয়েছেন।
 ইসলামিক স্টেট গোষ্ঠী এই হামলার দায় স্বীকার করেছে। রুশ কর্তৃপক্ষ অস্ত্রসহ ৪ জনসহ মোট ১১ সন্ত্রাসীকে আটক করেছে।
 এই কাপুরুষোচিত হামলার বিশ্বজুড়ে সরকারের পক্ষ থেকে নিন্দা, সমবেদনা এবং সংহতি প্রকাশ করা হয়েছে। 
 হোয়াইট হাউস ‘ভয়ানক’ গুলির শিকারদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেছে তারা আরও তথ্য পাওয়ার চেষ্টা করছে।
 ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের মুখপাত্র জন কিরবি সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আমাদের চিন্তাভাবনা এই ভয়ানক বন্দুক হামলার শিকারদের প্রতি রয়েছে।
 হোয়াইট হাউস আরও বলেছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মার্চের শুরুতে মস্কোতে ‘বড় সমাবেশ’ লক্ষ্য করে একটি ‘পরিকল্পিত সন্ত্রাসী হামলা’ সম্পর্কে রাশিয়ান কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করেছিল।
 রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এই হামলার ‘কঠোর নিন্দা’ করেছেন এবং পুতিনের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।
 সিনহুয়া নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, শি ‘জোর দিয়েছিলেন,  চীন সব ধরনের সন্ত্রাসবাদের বিরোধিতা করে। সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা করে এবং তার জাতীয় নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা রক্ষার জন্য রুশ সরকারের প্রচেষ্টাকে দৃঢ়ভাবে সমর্থন করে।’
 ইউরোপীয় ইউনিয়ন বলেছে, মস্কোর হামলায় তারা ‘মর্মাহত ও আতঙ্কিত।’
 ইইউ’র একজন মুখপাত্র বলেছেন, ‘ইইউ বেসামরিক নাগরিকদের বিরুদ্ধে যে কোনও হামলার নিন্দা করে। আমাদের চিন্তাভাবনা ক্ষতিগ্রস্ত সমস্ত রাশিয়ান নাগরিকদের প্রতি রয়েছে।’
 এলিসি প্রাসাদ জানিয়েছে, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেছেন, তিনি ‘ইসলামিক স্টেট কর্তৃক দাবি করা সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা করেন। 
 প্রাসাদ বলেছে, ‘ফ্রান্স ক্ষতিগ্রস্তদের, তাদের প্রিয়জনদের এবং সমস্ত রাশিয়ান জনগণের সাথে সংহতি প্রকাশ করে।’
জার্মানির পররাষ্ট্র দপ্তর এক্স-এ নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনার পাশাপাশি বলেছে, ‘মস্কোর কাছে ক্রোকাস সিটি হলে নিরপরাধ মানুষের উপর ভয়ঙ্কর হামলার ঘটনা দ্রুত তদন্ত করা উচিত।’ 
 ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি এই হামলাকে ‘সন্ত্রাসবাদের জঘন্য কাজ’ বলে অভিহিত করেছেন।
মেলোনি এক বিবৃতিতে ‘ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ এবং ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারের সাথে পূর্ণ সংহতি প্রকাশ করে বলেছেন ‘মস্কোতে নিরপরাধ বেসামরিক গণহত্যার ভয়াবহতা অগ্রহণযোগ্য।’
 স্পেন বলেছে, তারা এই হামলায় ‘মর্মাহত’ হয়েছে এবং বলেছে তারা ‘যে কোনো ধরনের সহিংসতার নিন্দা করে।’
 স্প্যানিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক্স-এ লিখেছে, ‘ভুক্তভোগী, তাদের পরিবার এবং রাশিয়ান জনগণের সাথে আমাদের সংহতি।’
 ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজ এক্স-এ পোস্ট করেছেন, ‘মস্কোতে শুক্রবার রাতের মর্মান্তিক ঘটনার জন্য মর্মাহত। নিহতদের পরিবার এবং ক্ষতিগ্রস্ত সকলের প্রতি আমাদের হৃদয় শোকাহত।’
 ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্সি এই হামলার নিন্দা করেছেন এবং ‘বন্ধুত্বপূর্ণ রাশিয়ান ফেডারেশনে স্থিতিশীলতার প্রতি তার আগ্রহের উপর জোর দিয়ে রাশিয়ান নেতৃত্ব এবং রাশিয়ার বন্ধুত্বপূর্ণ জনগণের প্রতি তার সংহতি ও সমর্থন নিশ্চিত করেছেন।’ 
 ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো এক্সে একপোস্ট বলেছেন, আমরা প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের প্রতি আমাদের সমর্থন প্রকাশ করি এবং যে কোনো সহিংসতাকে স্পষ্টভাবে প্রত্যাখ্যান করার জন্য আমাদের সমর্থন থাকবে।
 মেক্সিকোর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, তারা ‘বেসামরিক মানুষের জীবনের বিরুদ্ধে সহিংসতার যে কোনো কাজ প্রত্যাখ্যান করে।’
 ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক্স-এ বলেছেন, ‘দুঃখের এই সময়ে ভারত সরকার এবং রাশিয়ান ফেডারেশনের জনগণের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছে।’ ভারত এই ‘জঘন্য সন্ত্রাসী হামলার’ নিন্দা করে।
 জাপানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রেস সেক্রেটারী কোবায়াশি মাকির এক বিবৃতিতে বলেছেন, জাপান হামলার নিন্দা করেছে। শোকাহতদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছে এবং যারা আহত হয়েছে তাদের প্রতি আন্তরিক সহানুভূতি প্রকাশ করেছে।

ইসরায়েলের ওপর ইরানের হামলা ‘সফল হয়েছে’ : তেহরান
ইসরায়েলে মার্কিন কুটনীতিকদের জন্য ভ্রমণ সতর্কতা
পাথর-বিটুমিন মিশ্রণযন্ত্রের দুর্গন্ধযুক্ত কালো ধোঁয়ায় বায়ু দুষণ॥প্রতিকারের কেউ নেই!
সর্বশেষ সংবাদ