ঢাকা মঙ্গলবার, মার্চ ৫, ২০২৪
রাজবাড়ীতে শহীদ বুদ্ধিজীবী ও বিজয় দিবসের প্রস্তুতিমূলক সভা
  • আসহাবুল ইয়ামিন রয়েন
  • ২০২৩-১১-১৬ ১৬:৫৩:২৯

রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গতকাল ১৬ই নভেম্বর সকালে কালেক্টরেটের সম্মেলন কক্ষে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবসের প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খানের সভাপতিত্বে ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) সূবর্ণা রানী সাহার সঞ্চলনায় সভায় সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ ইব্রাহীম টিটন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর সার্কেল) মোঃ ইফতেখারুজ্জামান, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডঃ ইমদাদুল হক বিশ্বাস, সদর উপজেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল জলিল, বীর মুক্তিযোদ্ধ সিরাজ আহম্মেদ, জেলা কালচারাল অফিসার পার্থ প্রতীম দাস প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 এ সময় রাজবাড়ী এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ ইউসুফ হোসেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ, জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনারগণ, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের কর্মকর্তাগণ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

 সভায় জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান তার বক্তব্যের শুরুতে মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান, জাতীয় চার নেতা, মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ সকল বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বুদ্ধিজীবীগণসহ মহান মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, প্রতিবারের ন্যায় এবারও জাতীয় কর্মসূচীর সাথে সঙ্গতি রেখে যাথযথ মর্যাদায় রাজবাড়ীতে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস পালন করা হবে। দিবসটিকে সামনে রেখে যে সমস্থ কর্মসূচী পালন করা সেগুলোর যাতে যথাযথ ভাবে সম্পন্ন করা যায় সে জন্য উপ-কমিটি কাজ করবে। নির্বাচনকে সামনে রেখে জেলার আইন-শৃঙ্খলা ভালো রেখে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দিবসটি পালন করা হবে। সে জন্য রাজবাড়ীবাসী প্রতিবারের মত এবারও দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় সুষ্ঠ ও সুন্দর ভাবে পালন করতে সর্বোচ্চ সহযোগিতা প্রদান করবেন বলে আমি আশা করি। 

 উল্লেখ্য যে, সভায় সকলের মতামতের ভিত্তিতে শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান স্বাধীনতা দিবসে রাষ্ট্রীয় কর্মসূচীর সাথে সঙ্গতি রেখে রাজবাড়ীতে যে সকল কর্মসূচী পালন করা হবে তা প্রাথমিক ভাবে সেগুলো চুড়ান্ত করা হয়। 

 কর্মসূচিরগুলো হলো- আগামী ১৫ই ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে সকাল ১০টায় লোকসেডস্থ বদ্ধভুমিতে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে পুস্পমাল্য অর্পন, এরপর বিকাল পনে ৬টায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন, ৬টায় আলোচনা সভা ও সন্ধ্যা ৭টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দিবসটির কর্মসূচী শেষ হবে। আর সুবিধাজনক সময়ে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিশেষ প্রার্থনা করা হবে। 

 আগামী ১৬ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে প্রত্যুষে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের শুভ সূচনা কার হবে। এরপর  সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারী/আধা-সরকারী/স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারী ভবন/স্থাপনসমূহে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। সকাল ৭টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে, শ্রীপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে, রাজবাড়ী রেলগেটের স্মৃতিফলকে, লোকোশেড বধ্যভূমিতে, মুক্তিযোদ্ধা শহীদ রফিক, সফিক, সাদিকের কবরস্থান ও মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আঃ আজিজ খুশি’র কবরস্থানে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে। সকাল পৌনে ৯টায় বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ খুশি রেলওয়ে ময়দানে জেলা প্রশাসক কর্তৃক আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন, বীর মুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ, আনসার ও ভিডিপি, বিএনসিসি, সরকারী শিশু পরিবার, কলেজ, মাদ্রাসা ও বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী, রোভার স্কাউট, বয়েজ স্কাউট, গার্লস গাইড, কাবস্, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সমন্বয়ে সমাবেশ, কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে প্রদর্শন এবং পুরস্কার বিতরণ করা হবে। এবপর  দুপুরে জেলা অফিসার্স ক্লাব প্রঙ্গণে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে প্রীতি সম্মিলন ও সংবর্ধনা প্রদান করা হবে। বাদ যোহর সকল মসজিদে মহান মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদের স্মরণে বিশেষ মোনাজাত ও অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে সুবিধাজনক সময় বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হবে। বিকালে ৩টায় রাজবাড়ী অফিসার্স ক্লাব ও মহিলা ক্লাব প্রাঙ্গণে মহিলাদের অংশগ্রহণে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক আলোচনা সভা ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও বিকাল সাড়ে ৩টায় বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ খুশি রেলওয়ে ময়দানে সকলের জেলা প্রশাসন, সরকারী-বেসরকারী কর্মকর্তা/কর্মচারী, রাজবাড়ী পৌরসভা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা বার এসোসিয়েশন, রাজবাড়ী প্রেসক্লাব, রাজবাড়ী চেম্বার অব কমার্সের অংশগ্রহণে দাঁড়িয়াবাধা ও ফুটবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় শহীদ খুশি রেলওয়ে ময়দানে স্থাপিত বিজয় দিবস মঞ্চে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান মাধ্যমে দিবটির কর্মসূচী সমাপ্ত হবে। 

 এছাড়াও জেলা তথ্য অফিস কর্তৃক রাজবাড়ী রেলগেট সংলগ্ন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলক চত্ত্বরে প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী এবং শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ও সরকারী/বেসরকারী প্রতিষ্ঠানসমূহে আলোকসজ্জা, জেলাখানা, সরকারী শিশুসদন ও হাসপাতালে বিশেষ খাবার পরিবেশন করা হবে বলে সভায় প্রাথমিক সিন্ধান্ত গৃহীত হয়।  

রাজবাড়ী শহরের ডাঃ রতন ক্লিনিকে ফের ভুল চিকিৎসায় সিজারিয়ান নারীর মৃত্যু
শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের বাণী
মহান বিজয় দিবসে জেলা প্রশাসকের বাণী
সর্বশেষ সংবাদ