ঢাকা মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১, ২০২০
কলেজ পরিবারের আয়োজনে জাঁকজমকপূর্ণভাবে দানবীর ডাঃ আবুল হোসেনের জন্মদিন উদযাপন
  • সুশীল দাস
  • ২০২০-১১-২২ ০১:২৮:১৩
রাজবাড়ীর ডাঃ আবুল হোসেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা, বিশিষ্ট চিকিৎসক, সমাজসেবক ও দানবীর ডাঃ আবুল হোসেনের ৯০তম জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল ২১শে নভেম্বর ১১টায় কলেজের শিক্ষক মিলনায়তনে কলেজ পরিবারের আয়োজনে কেক কাটা হয় -মাতৃকণ্ঠ।

রাজবাড়ীর ডাঃ আবুল হোসেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা, বিশিষ্ট চিকিৎসক, সমাজসেবক ও দানবীর ডাঃ আবুল হোসেনের কর্মময় জীবনের উপর আলোচনা ও আনুষ্ঠানিকভাবে কেক কাটার মধ্য দিয়ে কলেজ পরিবারের আয়োজনে জাঁকজমকপূর্ণভাবে তাঁর ৯০তম জন্মদিন উদযাপন করা হয়েছে। 
  গতকাল ২১শে নভেম্বর বেলা ১১টার দিকে ডাঃ আবুল হোসেন কলেজের শিক্ষক মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়।
  কলেজের গভর্নিং বডি’র সভাপতি ও রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ চৌধুরী আহসানুল করিম হিটু। 
  কলেজের জীববিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মিরুনা বানু মুনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ডাঃ আবুল হোসেনের ভাগ্নে (প্রতিনিধি) ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রউফ, কলেজের শিক্ষকদের মধ্যে দর্শন বিভাগের শামীমা আক্তার মুনমুন, মনোয়ার হোসেন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের রশীদ আল কামাল, রুমা নাসরিন, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শেখ এন হোসেন, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সিরাজুল ইসলাম, হিসাববিজ্ঞান বিভাগের আতিয়ার রহমান, পরিসংখ্যান বিভাগের নূরুল ইসলাম বকুল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। 
  সভাপতির বক্তব্যে কলেজের গভর্নিং বডি’র সভাপতি ও রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার বলেন, খ্যাতিমান চিকিৎসক আবুল হোসেন তার কষ্টার্জিত অর্থ দিয়ে এই কলেজের পাশাপাশি প্রাইমারী স্কুল, হাই স্কুল, এতিমখানা, জাদুঘর, খেলার মাঠ, দাতব্য চিকিৎসালয়, কমিউনিটি ক্লিনিকসহ যেসব প্রতিষ্ঠান করেছেন তার মাধ্যমে অসংখ্য মানুষ উপকৃত হচ্ছে। অনেক মানুষের সম্মানজনক জীবিকার ব্যবস্থা হয়েছে। তাঁর মতো এমন জনদরদী, ত্যাগী, সাদা মনের মানুষ শুধু বাংলাদেশই নয়-সারা বিশ্বেই বিরল। কর্মগুণে তিনি নিজেকে এ যুগের হাজী মুহম্মদ মহসীন হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছেন। তিনি দীর্ঘায়ু হোন, আরো অনেকদিন ভালোভাবে বেঁচে থাকুন-মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে এই প্রার্থনাই জানাই। 
  এছাড়াও তিনি (ফকীর আব্দুল জব্বার) তার বক্তব্যে দানবীর ডাঃ আবুল হোসেনের হাতে গড়া প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিচিতি সম্বলিত লিফলেট তৈরী করে ব্যাপকভাবে প্রচারের আহ্বান এবং জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে কলেজের উন্নয়নে অর্থ বরাদ্দ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। 
  স্বাগত বক্তব্যে কলেজের সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ চৌধুরী আহসানুল করিম হিটু বলেন, ডাঃ আবুল হোসেনের জন্মদিনে মহান আল্লাহ্ রাব্বুল আলামিনের দরবারে তার সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। একই সাথে তার সহধর্মিনী বেগম নুরজাহান হোসেন এবং সন্তান-স্বজনদের জন্যও সুস্বাস্থ্য ও মঙ্গল কামনা করছি। ডাঃ আবুল হোসেন শুধুমাত্র একজন ব্যক্তি নন-তিনি নিজেই একটি প্রতিষ্ঠান। তিনি নিজের ও সন্তানদের ভবিষ্যতের কথা না ভেবে রাজবাড়ীর মানুষের কল্যাণে তার উপার্জিত সম্পদ উৎসর্গ করেছেন। রাজবাড়ীবাসী তার কাছে চিরঋণী। 
  আলোচনা পর্বের শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশালাকৃতির কেক কেটে ডাঃ আবুল হোসেনের ৯০তম জন্মদিন উদযাপন করা হয়। কলেজের গভর্নিং বডি’র সদস্য, শিক্ষক মন্ডলী ও কর্মচারীগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।    
   উল্লেখ্য, বর্তমানে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডন প্রবাসী ডাঃ আবুল হোসেন ১৯৩০ সালের ২০শে নভেম্বর রাজবাড়ী সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়নের ভবদিয়া গ্রামের পৈত্রিক বাড়ীতে জন্মগ্রহণ করেন। স্কুল, কলেজ, এতিমখানা, জাদুঘর প্রতিষ্ঠাসহ সমাজসেবামূলক কাজের জন্য অকাতরে নিজের অর্জিত সম্পদ দান করে তিনি বরণীয় হয়ে আছেন।

 

রাজবাড়ীর লোকসেড বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভ ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের কবর পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক
পাংশায় অধ্যাপক আবুল হোসেন মল্লিক স্মরণে আলোচনা সভা-দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত
রাজবাড়ীর জৌকুড়ায় সরিয়ে নেয়া ফেরী ঘাট পর্যন্ত চলাচলে ঘোড়ার গাড়ীই একমাত্র ভরসা
সর্বশেষ সংবাদ