ঢাকা মঙ্গলবার, মার্চ ৫, ২০২৪
রাজবাড়ী-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ইমদাদুল হক বিশ্বাসের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ
  • মীর সামসুজ্জামান
  • ২০২৩-১১-২৮ ১৪:২২:৪৮

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিতে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগের পর এডঃ ইমদাদুল হক বিশ্বাস গতকাল ২৮শে নভেম্বর দুপুরে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খানের নিকট থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। এ সময় তার ভাই ও সাথে কয়েকজন কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

 মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ শেষে এডঃ ইমদাদুল হক বিশ্বাস বলেন, আগামী ২০২৪ সালের ৭ই জানুয়ারী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এ নির্বাচনকে ঘিরে রাজবাড়ী সদর ও গোয়ালন্দ উপজেলার মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছি। নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করার জন্য আমি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছি। একটি দেশ স্বাধীন হওয়ার পরে রাজবাড়ীর রাজনৈতিক অঙ্গনে তেমন প্রভূত কোন উন্নয়ন হয়নি। আমাদের বর্তমান এমপি যিনি ৫বারের নির্বাচিত এমপি তিনি রাজবাড়ীর নদী ভাঙন এলাকার মানুষের জন্য আয়বর্ধক কোন প্রকল্প গ্রহণ করতে পারেনি। আজকে যদি গোয়ালন্দে একটি ইপিজেড তৈরি হতো তাহলে রাজবাড়ী ও গোয়ালন্দের প্রায় ১০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান তৈরি হতো। কিন্তু বর্তমান এমপি সেটা করতে পারেনি। উপরন্তু নদী ভাঙনে হাজার হাজার মানুষ বিভিন্ন অঞ্চলে বসবাস করছে। বর্তমান এমপি তাদের কোন পুনর্বাসন করতে পারেননি। রাজবাড়ীর মানুষ, গোয়ালন্দের মানুষ এখন দেশের বিভিন্ন জায়গায় বসবাস করছে। অথচ তারা কিন্তু রাজবাড়ীর ভোটার। এসব মানুষের দুঃখ দুর্দশার পাশে তিনি থাকতে পারেননি। 

 তিনি আরও বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকা রাজবাড়ী সদরে উপজেলা চেয়ারম্যান ছিলাম ৪বার। আমি চেষ্টা করেছি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর। পাশাপাশি আমি গোয়ালন্দ উপজেলার মানুষের দুঃখ, হাহাকার দেখেছি। আমি প্রয়ই গোয়ালন্দের নদী ভাঙন এলাকায় যায়। ওই জায়গার মানুষ বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় স্টেটমেন্ট দিয়েছেন বর্তমান এমপি তাদের জন্য কিছু করতে পারেননি। সেই জায়গা থেকে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি নদী ভাঙন মানুষ ও ভর অঞ্চলের মানুষ যারা দুঃখকষ্টের মধ্যে আছে তাদের অর্থনৈতিক স্বনির্ভরতা দেওয়ার জন্য আমার এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা। আমি চাই ভিক্ষুকের হাত নয়, কর্মের হাত হোক মানুষের। আমি নির্বাচিত হলে প্রত্যেকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবো। কর্মসংস্থান সৃষ্টি হলে উন্নত সমাজ ব্যবস্থা সৃষ্টি হবে। প্রত্যেকটি পরিবার যাতে সমৃদ্ধ হয় সেই চেষ্টা আমার থাকবে।

 এ সময় সাংবাদিকদের আরো বলেন, আমি চাই একটি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হোক। অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে রাজবাড়ী ও গোয়ালন্দের মানুষ আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবে বলে আমি এ বিশ্বাস জনগনের প্রতি রাখি। কারণ ইতিমধ্যে আমি পরীক্ষা দিয়েছি। চার চার বার আমি উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। তার মধ্যে তিনবার বিদ্রোহী প্রার্থী ও একবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে দলীয় ভাবে নমিনেশন দিয়েছিলেন। এখানকার মানুষ আমাকে ভালোবেসেছে। আমি তাদেরকে ভালোবাসা দিয়েছি। এই ভালোবাসা আমার জন্য একটি বড় জিনিস। জনগণ আমাকে আলাদা ভাবে না, আমিও জনগনকে আলাদা ভাবিনা। তারা মনে করে আমরা সবাই একই গোত্রের লোক। আমি জনগণের পাশে থাকার মানুষ। আমার অফিসে অবাধ মানুষের বিচরণ ছিলো, আমার বাসাতেও মানুষ বিচরণ করে। কিন্তু অনেককেই আমারা জানি দুই/তিন ঘন্টা বসিয়ে রেখে বলে আজকে সাহেবের সাথে দেখা হবে না। আমি ইমদাদ বিশ্বাস ওইসব বিশ্বাস করিনা। আমি মানুষের সাথে সরাসরি কথা বলি, মানুষ আমার কাছে সরাসরি আসে। যতটুকু পারি আমার ক্ষমতার ভেতর থাকলে করে দেই। আর যেটা পারিনা বলে দেই এটা আমার এক্তিয়ার বহিঃর্ভূত। মানুষকে চাপ দিয়ে আমি কোন ভোট নেইনি, মানুষকে ধোকা দিয়ে আমি কোন রাজনৈতিক কাজ করতে চাই না।

 
 রাজবাড়ী সদর উপজেলার নতুন ইউএনও রবিউল আলমের দায়িত্ব গ্রহণ
কালুখালীর লাড়িবাড়ীতে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত মঙ্গল বিশ্বাস মৃত্যু
রাজবাড়ীতে দৈনিক সময়ের আলোর ৫ম বর্ষপূর্তি পালন
সর্বশেষ সংবাদ