ঢাকা বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৩, ২০২০
মনোনয়ন পেলে ফের রাজবাড়ী পৌর মেয়র পদে নির্বাচন করবো ও কাউন্সিলে জেলা আ’লীগের সেক্রেটারী প্রার্থী হবো-
  • সুশীল দাস/সোহেল মিয়া
  • ২০২০-১০-২১ ২২:৫০:৩০
রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মহম্মদ আলী চৌধুরী আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে আজ ২১শে অক্টোবর বাজারের কলেজ রোডের খোরশেদ আলী প্লাজায় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন -মাতৃকণ্ঠ।

 রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মহম্মদ আলী চৌধুরী বলেছেন, আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে দল তাকে মনোনয়ন দিলে তিনি আবারও মেয়র পদে নির্বাচন করবেন এবং দলের জেলা কমিটির আসন্ন কাউন্সিলে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হবেন।

  আসন্ন রাজবাড়ী পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে আজ ২১শে অক্টোবর বেলা সোয়া ১১টায় রাজবাড়ী বাজারের কলেজ রোডের খোরশেদ আলী প্লাজায় আয়োজিত ‘সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়’ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। 

  পৌর মেয়র মহম্মদ আলী চৌধুরী বলেন, আমি দীর্ঘ প্রায় ৪২ বছর যাবৎ আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হয়েছি। ২০ বছর রাজবাড়ী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলাম। বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। ২বার মেয়র নির্বাচিত হয়েছি। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে কখনো দলের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করিনি। আমি দৃঢ়ভাবে আশাবাদী, আওয়ামী লীগ সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনা এবারও আমাকেই দলীয় মনোনয়ন দিবেন। এর পাশাপাশি জেলা আওয়ামী লীগের আগামী কাউন্সিলে আমি সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশী। কিছুদিন আগে আমার হার্টে পেস মেকার লাগানো হলেও আমি পুরোপুরি সুস্থ আছি। কিন্তু আমি অসুস্থ, নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবো না- এসব গুজব ছড়ানো হচ্ছে। আমার কর্মী-সমর্থক ও দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টির অপচেষ্টা করা হচ্ছে। 

  তিনি আরও বলেন, নেত্রী যদি আমাকে এবারও মনোনয়ন দেন তাহলে আমি নির্বাচন করবো। নেত্রীর প্রতি আমার শতভাগ আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে। আমি দুইবার মেয়র থাকাকালীন রাজবাড়ীর যে উন্নয়ন করেছি তাতে আমি মনে করি নেত্রী আমাকেই এবার মনোনয়ন দিবেন। এছাড়াও আমার দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের শুরু থেকে এ পর্যন্ত জেলা আওয়ামী লীগের সাথে জড়িত রয়েছি। ৭৫’ পরবর্তীকালে দলের দুঃসময়ে জেলা আওয়ামী লীগের যে কমিটি হয় সেই কমিটিতে আমি কোষাধ্যক্ষ ছিলাম। যখন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলাম, তখনও জেলা আওয়ামী লীগের কমিটিতে ছিলাম। রাজনীতির অনেক কিছু আমি শিখেছি আমার চাচা আব্দুল ওয়াজেদ চৌধুরীর(রাজবাড়ী-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি) কাছ থেকে। ৭৫’-এর পর তার বাড়ীটি সরকার ক্রোক করলে তিনি আমাদের বাড়ীতে, আমার রুমেই থাকতেন। তিনি যেখানে যেতেন আমি তার সাথে যেতাম, কোর্টে নিয়ে যেতাম। ওই সময় তার কাছ থেকে শেখার পাশাপাশি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবন থেকেও আমি অনেক কিছু শিখেছি। গণতান্ত্রিক দল আওয়ামী লীগে মেয়র পদে একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী থাকতে পারে। আমি ছাড়াও অনেকে দলীয় মনোনয়ন চাইতে পারেন। তবে জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকেই দলীয় মনোনয়ন দিবেন বলে আমি দৃঢ়ভাবে আশাবাদী। 

  বক্তব্যের শুরুতে মহম্মদ আলী চৌধুরী করোনা ভাইরাসে মৃত্যুবরণকারী সকলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে তাদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান এবং বক্তব্যের শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। 

  সাংবাদিকরা ফুটপাত বেদখল হয়ে যাওয়া, যানজট, হেভি লোডের বালুবাহী ট্রাক চলাচলের কারণে রাস্তা-ঘাটের দুরবস্থা, সাপ্লাইয়ের পানির মূল্য বৃদ্ধি, স্যানিটেশন, স্বাস্থ্য, বন্ধ হয়ে যাওয়া পৌর শিশু হাসপাতাল, সড়ক বাতি, অগ্নিনির্বাপণের জন্য একাধিক পানির রিজার্ভার নির্মাণ, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, দুস্থদের আর্থিক সহায়তা প্রদান, করোনার জন্য পৌর করে ছাড় দেয়া, পৌরসভার স্থাপিত টিউবওয়েলগুলো বিকল হয়ে থাকা, লেকগুলোর সংস্কার করে সৌন্দর্যবর্ধনসহ বিভিন্ন বিষয়ে তাকে প্রশ্ন করেন এবং তিনি তার মতো করে প্রশ্নগুলোর উত্তর দেন। 

  সবশেষে তিনি তাকে নিয়ে রটানো কোন গুজবে কান দেয়ার জন্য পৌরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানান এবং সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন। রাজবাড়ী জেলা পর্যায়ে কর্মরত সাংবাদিকগণসহ মেয়র মহম্মদ আলী চৌধুরী শতাধিক কর্মী-সমর্থক এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

রাজবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে দল যাকে মনোনয়ন দিবে তার পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে---কাজী ইরাদত আলী
নুরুজ্জামান মিয়ার ইন্তেকালে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের শোক
গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুজ্জামান মিয়ার মৃত্যুতে এমপি কাজী কেরামত আলীর শোক
সর্বশেষ সংবাদ