ঢাকা বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১১, ২০২২
মাদক সেবন ও বন্ধুর বোনের সাথে প্রেমের জেরে খুন হয় কিশোর বাদল
  • তনু সিকদার সবুজ
  • ২০২২-০৭-০১ ০০:৪২:৫৪
বালিয়াকান্দি উপজেলার বড় হিজলী গ্রামের পাট ক্ষেত থেকে গত ২৬শে জুন সকালে পুলিশ কিশোর বাদল মোল্লার ক্ষত-বিক্ষত লাশ উদ্ধার করে -মাতৃকণ্ঠ।

রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের বড়হিজলী গ্রামের বাহরাইন প্রবাসী হুমায়ন মোল্লার ছেলে আজিম মোল্লা ওরফে বাদল(১৫) হত্যার নেপথ্যে রয়েছে মাদক সেবনের ভাগাভাগি ও বন্ধুর বোনের সাথে প্রেমের সম্পর্ক। 
  গ্রেফতারকৃত আসামীদের আদালতে দেওয়া ১৬৪ ধারার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীতে নেপথ্যের বিষয় উঠে এসেছে। রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামান গতকাল ৩০শে জুন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। 
  পুলিশ ও আসামীদের ১৬৪ ধারার জবানবন্দী থেকে জানা গেছে, নিহত বাদল মাদ্রাসার অনিয়মিত ছাত্র ছিল। মাঝে সে কিছুদিন রাজমিস্ত্রীর জোগালের কাজও করেছে। সে ও আসামীরা একসাথে মাদক সেবন করতো। এছাড়া বাদলের সাথে এক আসামীর বোনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। মাদক সেবনের ভাগাভাগি ও বন্ধুর বোনের সাথে প্রেমের সম্পর্কের জেরে দ্বন্দ্ব হলে আসামীরা তাকে খুনের পরিকল্পনা করে। গত ২৫শে জুন রাতে বাদলসহ আসামীরা ঘটনাস্থল পাট ক্ষেতের মধ্যে আঠা জাতীয় মাদক সেবন করতে যায়। সেখানে মাদক সেবনের ভাগাভাগি ও বন্ধুর বোনের সাথের সম্পর্কের বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে ৮ জন বন্ধু মিলে বাদলকে ছুরিকাঘাতে হত্যাসহ তার পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলে।
  উল্লেখ্য, গত ২৬শে জুন সকালে ওই পাট ক্ষেত থেকে বাদলের লাশ উদ্ধারের পর তার বড় ভাই কামরুল মোল্লা বাদী হয়ে বালিয়াকান্দি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পুলিশ ওই দিনই একই গ্রামের সবুর শেখ(২২), স্বাধীন মন্ডল(১৬) ও তোজাই মোল্লা (১৬)কে এবং ২৮শে জুন আশিক মন্ডল নামে আরেকজনকে গ্রেফতার করে। আদালতে সোপর্দ করলে তারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করে। 

পাংশা মডেল থানায় আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত
পাংশা পৌরসভা পরিদর্শনে ডিডিএলজি
বালিয়াকান্দিতে পেঁপে গাছের সাথে গলায় ফাঁস নিয়ে যুবকের আত্মহত্যা
সর্বশেষ সংবাদ