ঢাকা শুক্রবার, জুন ১৪, ২০২৪
সোলায়মান আলী যুক্তরাষ্ট্র আ’লীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত
  • ষ্টাফ রিপোর্টার
  • ২০২৪-০৪-২৫ ১৮:০২:১৯

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন ফরিদপুর জেলার সালথার কৃতি সন্তান মোঃ সোলায়মান আলী।
 এরআগে তিনি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
 গত ১৪ই এপ্রিল যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় সর্বম্মতিক্রমে তাকে সহ-সভপতি পদে নির্বাচিত করা হয়। তিনি ১৯৯৫ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে বসবাস করছেন।
 জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ডক্টর সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে তিনি সততার সাথে সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করে এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। বিশেষ করে করোনাকালীন সময়ে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগকে তিনি উজ্জীবিত করে রেখেছিলেন। শতাধিক জুম মিটিং-এর তিনি ছিলেন টেকনিকাল কারিগর। তাই যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ সভাপতি ডক্টর সিদ্দিকুর রহমান তাকে সহ-সভাপতি নির্বাচিত করেছেন তার কর্মের স্বীকৃতি স্বরূপ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মোতাবেক। 
 মোঃ সোলায়মান আলী নিউইয়র্ক স্টেট স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাবেক কোষাধ্যক্ষ, কমিউনিটি বোর্ড ৭ থেকে নির্বাচিত মেম্বার ও প্ল্যানিং কমিটির চেয়ারম্যান, মূলধারার রাজনৈতিক সংগঠন ‘বাংলাদেশী আমেরিকান ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক সোসাইটির’ প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক, পরবর্তীতে সভাপতি, সেবামূলক মানবিক সংস্থা ‘হিউম্যান সাপোর্ট কর্পোরেশন’-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। ব্রস্কস মুসলিম সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক। ফরিদপুর জেলা কল্যাণ সমিতির সাবেক সভাপতি, মা ট্রাভেল এজেন্সির সত্ত্বাধিকারী, রিয়েল স্টেট কোম্পানি দ্যা বেস্ট হোপ রিয়েলটির ব্রোকার ও সত্ত্বাধিকারী। ইনকাম ট্যাক্স ইমিগ্রেশন ও মাল্টি সার্ভিস প্রোভাইডার।
 উল্লেখ্য, নব্বই দশকে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সূর্যসেন হলের(আবাসিক) ছাত্র মোঃ সোলায়মান আলী ছাত্রলীগের সক্রিয় নেতা ছিলেন। তিনি সূর্যসেন হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছিলেন।
 ফখরুদ্দীন-মইনুদ্দিন তত্ত্বাধায়ক সরকারের নিষেধাজ্ঞা ও রক্তচক্ষু অমান্য করে অকুতভয়ী সোলায়মান আলী ২০০৭ সালে দলের সেই চরম দুর্দিনে নিউইয়র্ক থেকে বর্তমানের সফল রাষ্ট্রনায়ক দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনার সফরসঙ্গী হয়ে ছিলেন। 
 তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সূর্যসেন হলের আবাসিক ছাত্র থাকাকালীন সময়ে ছাত্র লীগের গৌরব উজ্জ্বল প্রতিটি কর্মকান্ডে জড়িত ছিলেন ছাত্রলীগের সক্রিয় নেতা হিসেবে। দেশরতœ শেখ হাসিনার হাতে গড়া সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘বাংলার মুখের’ অর্থ ও দপ্তর সম্পাদক হিসেবে দেশরতœ শেখ হাসিনার খুব কাছে থেকে কাজ করার সুযোগ পান তিনি। 
 সোলায়মান আলী দেশে ও বিদেশে রাজনীতির পাশাপাশি নানা সামাজিক কর্মকান্ডের সাথেও জড়িত ছিলেন। ঢাকাস্থ ছাত্র ও যুব কল্যাণ সমিতির আহবায়ক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘নদীর’ যুগ্ম আহবায়ক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘দৃষ্টির’ যুগ্ম আহবায়ক, রক্তদান সংস্থা বন্ধন-এর সাংগঠনিক সম্পাদক, দেশের ১ম ধূমপান বিরোধী সংগঠন স্টুডেন্ট এন্টি স্মোকিং কমিটির সভাপতি ছিলেন।
 যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সোলায়মান আলী বলেন, দেশরতœ শেখ হাসিনা সর্বযুগের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা। তিনি নিজ কর্মগুণে বিশ্বে অনন্যা। অপ্রতিরোধ্য গতিতে বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল পরিণত করে সারা বিশ্বে প্রশংসিত। এত কঠিন পরিশ্রমী সৎ ভিশনারি প্রধানমন্ত্রী বিশ্বে বিরল। 
 তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পড়াশুনাকালীন ১ম বর্ষের ছাত্র থাকা অবস্থায় তৎকালীন ভাষাতত্ত্ব বিভাগের চেয়ারম্যান ডক্টর রাজিব হুমায়ুন সারের সাথে ৮৮ সালে আমি ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে প্রথম বাংলার মুখের প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে দেশরতœ শেখ হাসিনার খুব কাছে আসার সুযোগ পাই। বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র লীগের বিভিন্ন কর্মকান্ড সম্পন্ন করতে নেত্রীর খুবই কাছে আসার সুযোগ পাই বার বার। ২০০৭ সালে ৭ই মে নিইউয়র্ক থেকে ইত্তেহাদ এয়ারলাইন্স যোগে সকল বাধা উপেক্ষা করে নেত্রী যখন দেশে ফিরলেন, আমার পরম সৌভাগ্য আমি উনার সফরসঙ্গী ছিলাম। তখন ৭দিন পর আমার স্ত্রী’র ২য় সন্তান প্রসবের সময়। তবু স্ত্রীকে একা ফেলে মাত্র ৭দিনের সফরে নেত্রীর সঙ্গে দেশে যাই। তখন আমি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের নিউইয়র্ক শাখার সভাপতি ছিলাম।  
 ২০১১ সাল থেকে অদ্যাবধি আমি নেত্রীর নিজ স্বাক্ষরিত কমিটির প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক হিসেবে প্রতিটি কর্মকান্ড সম্পন্ন করে সভাপতি ডক্টর সিদ্দিকুর রহমানকে এখনও সর্বাত্মক সহযোগিতা করে আসছি। গত ১৪ই এপ্রিল দলের বর্ধিত সভায় সর্বম্মতিক্রমে আমাকে বহিঃ বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ রাজনৈতিক সংগঠন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ-সভপতি পদে নির্বাচিত করা হয়। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত বাংলাদেশ গড়তে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আগামীতেও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে আরো বেশি বেশি করে দাযিত্ব পালন করব।
 সোলায়মান আলী আরো বলেন, পদ বড় নয়, কাজই বড়। নেত্রীর থেকে শিক্ষা। স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে নেত্রীর নির্দেশনায় সকলে মিলে কাজ করতে আমি বদ্ধপরিকর। সবার দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করছি।
 উল্লেখ্য, সোলায়মান আলীর সহধর্মিনী জাহানারা আলী যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি।
 ১৯৯৫ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে বসবাসকারী মোঃ সোলায়মান আলীর পৈত্রিক বাড়ী ফরিদপুর জেলার সালথা থানার আলমপুর গ্রামে। ফরিদপুর শহরের আলীপুরেও তার বাড়ী রয়েছে। পিতা-মাতার বড় সন্তান তিনি। তার শ^শুর বাড়ী রাজবাড়ী জেলা শহরের সজ্জনকান্দা মোল্লাপাড়ায়। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্যে অনার্স মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। তিনি তিন সন্তানের জনক।

পবিত্র হজ্ব পালনে সস্ত্রীক মক্কায় অবস্থান করছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা সোলায়মান আলী
সোলায়মান আলী যুক্তরাষ্ট্র আ’লীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত
পার্বত্য শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নের অগ্রগতি জাতিসংঘে তুলে ধরলেন প্রতিনিধি দল
সর্বশেষ সংবাদ