ঢাকা বুধবার, অক্টোবর ২৭, ২০২১
রাজবাড়ীতে মহিলা উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্যের শোরুম উদ্বোধন
  • আসাদুজ্জামান নুর
  • ২০২১-১০-১৪ ০০:৪৫:৪৫
মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাম চন্দ্র দাস গতকাল ১৩ই অক্টোবর বিকালে রাজবাড়ী শহরের পান্না চত্ত্বরের নান্নু টাওয়ারে মহিলা উদ্যোক্তাদের পণ্যের শোরুম উদ্বোধন করেন এবং আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন -মাতৃকণ্ঠ।

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের ‘উপজেলা পর্যায়ে মহিলাদের আয়বর্ধক(আইজিএ) প্রকল্প’র আওতায় রাজবাড়ীতে মহিলা উদ্যোক্তাদের পণ্যের শোরুম(সেলস এন্ড ডিসপ্লে সেন্টার) এর উদ্বোধন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।     

  গতকাল ১৩ই অক্টোবর বিকালে রাজবাড়ী শহরের পান্না চত্ত্বর সংলগ্ন নান্নু টাওয়ারের নীচতলায় প্রধান অতিথি হিসেবে শোরুমটির উদ্বোধন করেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাম চন্দ্র দাস। 

  এ সময় মহাপরিচালকের সহধর্মিনী মিতু দাস এবং জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ আজমীর হোসেনসহ মহিলা উদ্যোক্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। 

  শোরুম উদ্বোধনের পর জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে সংবর্ধনা, স্বেচ্ছাসেবী মহিলা সমিতি, কিশোর-কিশোরী ক্লাবের সদস্য ও প্রশিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় এবং কিশোর-কিশোরী ক্লাবের সদস্যদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। 

  জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাম চন্দ্র দাস। 

  এ সময় মহাপরিচালকের সহধর্মিনী মিতু দাস, জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ আজমীর হোসেন, প্রোগ্রাম অফিসার তাহমিদা খানম, গোয়ালন্দ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আবদুস সালাম সিদ্দিকী, বালিয়াকান্দি উপজেলা বিষয়ক কর্মকর্তা আফরোজা খাতুন এবং এনজিও রাসের নির্বাহী পরিচালক লুৎফর রহমান লাবু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

  অনুষ্ঠানে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে অতিথিদের উত্তরণ পরিয়ে দেয়াসহ প্রধান অতিথিকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন সাংস্কৃতিক সংঘের সভাপতি সাদমান সাকিব রাফি। 

  প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাম চন্দ্র দাস বলেন, মহিলা উদ্যোক্তাদের পণ্য বাজারজাতকরণে সেলস এন্ড ডিসপ্লে সেন্টারটি অনেক উপকারে আসবে। উৎপাদিত পণ্য শুধু রাজবাড়ীতেই বিক্রি করতে হবে-সেটা নয়। অনলাইনের মাধ্যমেও বিক্রি করতে পারবেন। প্রোডাক্টের মান ও দাম ভালো রাখলে মানুষ আপনাদের পণ্য নিতে আসবে। 

  তিনি আরও বলেন, আমাদের সবসময় স্বপ্ন থাকা দরকার। সারা দেশে আমাদের প্রায় ২৫ হাজারের মতো মহিলা স্বেচ্ছাসেবী সমিতি আছে। তাদের কাছে আমাদের অনেক প্রত্যাশা রয়েছে। 

   জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে বাল্য বিবাহ বৃদ্ধি পেয়েছে-এটা উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে কিশোর-কিশোরী ক্লাবের সদস্যদের ভূমিকা রাখতে হবে। বাল্য বিবাহ দূর হলে মেয়েরা নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারবে। সত্যিকারের মানুষ হতে হলে কিশোর-কিশোরীদের মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করতে হবে। সমাজ থেকে বাল্য বিবাহ দূর করতে হবে। 

পাটুরিয়া ঘাটে ১৭টি যানবাহন নিয়ে ফেরি আমানত শাহ ডুবি
রাজবাড়ীর গোদার বাজারে পদ্মা নদীতে ফের ভাঙন॥দেড়শ ১৫০ মিটার সিসি ব্লক নদীতে
খেলাধুলার মধ্যে থাকলে যুব সমাজ মাদকের থাবা থেকে মুক্ত থাকবে---এমপি কাজী কেরামত আলী
সর্বশেষ সংবাদ