ঢাকা মঙ্গলবার, মার্চ ৫, ২০২৪
বালিয়াকান্দিতে গ্রাম পুলিশ সদস্য হত্যার রহস্য উদঘাটন॥১জন গ্রেফতার
  • মীর সামসুজ্জামান
  • ২০২৪-০২-০৯ ১৪:৩৩:৩৭

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার চর আড়কান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোটকেন্দ্র পাহাড়া দেওয়া রণজিত কুমার দে(৪৫) হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ।

 রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে গতকাল ৯ই ফেব্রুয়ারী সকাল ১০টায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার জি.এম.আবুল কালাম আজাদ।

 পুলিশ সুপার বলেন, এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত মোঃ মুক্তার হোসেন(২৮) নামের এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে বালিয়াকান্দি থানা পুলিশ।

 গ্রেফতারকৃত মোঃ মুক্তার শেখ ফরিদপুর জেলার মধুখালী উপজেলার ঝাউকাঠি গ্রামের আজিজ শেখের ছেলে। নিহত রণজিত কুমার দে বালিয়াকান্দি উপজেলার চর আড়কান্দি গ্রামের শিবেন্দ্র দে’র ছেলে।

 প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার জি.এম আবুল কালাম আজাদ বলেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগের দিন ৬ই জানুয়ারী সকালে গ্রাম পুলিশ রণজিত দে’র মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। হত্যাকান্ডের একদিন পর ৮ই জানুয়ারী তার স্ত্রী রিতা দে বাদী হয়ে থানায় অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করে। পরবর্তী পুলিশ এই ক্লুলেস হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনের জন্য ৫ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে এবং নিবিড়ভাবে এই ক্লুলেস হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনের জন্য তৎপর হয়। পরবর্তীতে তদন্ত করতে গিয়ে আমরা হত্যাকান্ডের ক্লু পাই। মূলত ছাগল চুরি দেখে ফেলাকে কেন্দ্র করে রণজিতকে হত্যা করে আসামীরা। ঘটনার দিন রাতে ৩জনের একটি গ্রুপ পার্শ্ববর্তী গ্রাম থেকে দুইটি ছাগর চুরি করে ইজিবাইকে নিয়ে এসে চর আড়কান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিছনে অবস্থান নেয়। রণজিত দে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে যখন বাইরে বের হয় তখন সে বিষয়টি দেখে ফেলে। পরবর্তীতে চোর চক্রটি রণজিতকে অর্থের লোভ দেখায়। কিন্তু গ্রাম পুলিশ রণজিত তাতে রাজি না হয়ে বিষয়টি পুলিশকে জানাতে চাইলে তখন রণজিতকে গামছা দিয়ে পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে তারা রণজিতের মরদেহটি পাশের এক মেহগনি বাগানে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

 পুলিশ সুপার জি.এম আবুল কালাম আজাদ বলেন, হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকায় মুক্তার নামের এক আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে মুক্তার। এছাড়াও তাদের ব্যবহৃত একটি ইজিবাইক ও চুরি হওয়া দুইটি ছাগলের মধ্যে একটি ছাগলকে উদ্ধার করা হয়েছে। হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত আরও দুই আসামিকে গ্রেফতার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

 প্রেস ব্রিফিং এ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ক্রাইম এন্ড অপস্) মুকিত সরকার,বালিয়াকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন, জেলা গোয়েন্দা শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোঃ মনিরুজ্জামান খান, বালিয়াকান্দি থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) রাজিবুল ইসলামসহ জেলা পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

বালিয়াকান্দির বিভিন্ন সড়কে পড়ে থাকা ইটভাটার মাটি এখন যেন মরণ ফাঁদ!
গোয়ালন্দে ৭ই মার্চসহ ৪টি জাতীয় দিবস উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা
পাংশায় সৈয়দ বায়তুল্লাহ কিন্ডার গার্টেনে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ
সর্বশেষ সংবাদ