ঢাকা মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০২৪
রাজবাড়ী থানায় ঢুকে ওসিকে বৈদ্যুতিক শকের ঘটনায় মামলা॥২জনের রিমান্ড॥১জন কারাগারে
  • মীর সামসুজ্জামান
  • ২০২৪-০২-১২ ১৪:১৩:৩৩

রাজবাড়ী থানায় গত ১১ই ফেব্রুয়ারী বিকেলে ওসির কক্ষে ঢুকে বৈদ্যুতিক শকার মেশিন দিয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোঃ ইফতেখারুল আলম প্রধানকে শক দিয়ে আহত করার ঘটনা ঘটেছে। 

 এ ঘটনায় রাজবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) নীহারিকা সরকার বাদী হয়ে ৩জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন। এ মামলার ৩জন আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছে জেলা গোয়েন্দা শাখা(ডিবি)।

 গ্রেফতাররা হলো- রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়নের ডিগ্রীচর চাঁদপুর গ্রামের আজাদ শেখের ছেলে শফিকুল ইসলাম(২৪), একই গ্রামের আজিজ শেখের ছেলে লিটন শেখ(৪৫) ও শহীদওহাবপুর ইউনিয়নের মোঃ ইউসুফ আলীর ছেলে আক্কাস আলী মিয়া(৪৩)। গ্রেফতারকৃত আক্কাস আলী শহীদওহাবপুর ইউনিয়নের রূপপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

 গতকাল সোমবার দুপুরে গ্রেফতারকৃত আসামীদের ২জনকে দুই দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর ও ১জনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে রাজবাড়ীর ১নং আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সুমন হোসেন। 

 রাজবাড়ী থানা সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার দুপুরে লিটন শেখ ও শফিকুল ইসলাম ৯জনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী থানায় একটি মারামারির জিডি করতে যায়। ওই সময় থানায় ডিউটি অফিসার ছিলেন এস.আই নীহারিকা। থানার এস.আই নীহারিকার কাছে ৯জনের নামে জিডির বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হলে তিনি তাদেরকে অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইফতেখারুল আলম প্রধান এর রুমে নিয়ে যায়। তখন অফিসার ইনচার্জ বিষয়টি খোঁজ নেওয়ার জন্য একজন এস.আইকে নির্দেশ দেয়। পরবর্তীতে যখন খোঁজ নিয়ে দেখে যে তাদের সাথে ২/৩ জনের ঝামেলা তখন অফিসার ইনচার্জ ইফতেখারুল আলম প্রধান তাদেরকে জেরা করা শুরু করে। তখন শফিকুল ইসলাম থানার ওসির রুমে ঢুকে আক্কাস আলী মিয়াকে ফোন করে লাইনে রেখে ফোনটি পকেটে ঢুকান। এ বিষয়টি ওসি দেখে ফেললে তাদের পকেটে কি আছে বের করতে বলে। তখন শফিকুল ইসলাম তার পকেটে থাকা ৫হাজার কিলোভোল্টের বৈদ্যুতিক শকার মেশিন বের করে ওসির মুখে শক দেন। এতে তার মুখের খানিকটা অংশ রক্তাক্ত জখম হয়। এ সময় শফিকুল ইসলাম ও লিটন শেখ দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের আটক করে। পরে তাদের সহযোগী আক্কাসক আলী মিয়াকে আটক করা হয়।

 রাজবাড়ী গোয়েন্দা শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মনিরুজ্জামান খান বলেন, মামলাটি জেলা গোয়েন্দা শাখার তদন্তধীন রয়েছে। আটককৃতদের আদালতে পাঠিয়ে রিমান্ডের আবেদন করলে মামলার ১ ও ২ নম্বর আসামী শফিকুল ইসলাম ও লিটন শেখকে দুই দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছে। মামলার ৩নম্বর আসামী মোঃ আক্কাসকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

 রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার জি.এম আবুল কালাম আজাদ জানান, রাজবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জের উপর হামলার ঘটনাটি অনাকাক্ষিত। ঘটনাটি যে ঘটিয়েছে শফিকুল ইসলামের সিডিএমএস যাচাই করে দেখা গেছে তার নামে মারামারির একটি মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) নীহারিকা সরকার বাদী হয়ে ৩জনের বিরুদ্ধে সরকারী কাজে বাঁধা দেয়া ও হত্যাচেষ্টার মামলা করেছেন। মামলাটি জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)কে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। 

 
 রাজবাড়ীতে পবিত্র আশুরা উপলক্ষ্যে আঞ্জুমান-ই-কাদেরীয়ার শোক মিছিল
রাজবাড়ীতে বিএনপি কার্যালয়ে কোটা সংস্কার আন্দোলনে সহিংসতায় নিহত শিক্ষার্থীদের গায়েবী জানাযা অনুষ্ঠিত
রাজবাড়ীতে ছাত্রদলের মিছিলে পুলিশের বাঁধা
সর্বশেষ সংবাদ