ঢাকা বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪
বালিয়াকান্দির বিভিন্ন সড়কে পড়ে থাকা ইটভাটার মাটি এখন যেন মরণ ফাঁদ!
  • তনু সিকদার সবুজ
  • ২০২৪-০৩-০৪ ১৪:৩২:৫৫

রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার বিভিন্ন পাকা সড়কে দিনের পর দিন পড়ে থাকা ইটভাটার মাটি বৃষ্টিতে ভিজে এখন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। এতে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। শুধুমাত্র ব্যবস্থা নেয়া হবে এমন বক্তব্য দিয়েই দায় সারছেন উপজেলা প্রশাসন। 

 সরেজমিনে দেখা গেছে, গতকাল ৪ঠা মার্চ ভোরে সামান্য বৃষ্টি হয়। এতেই বালিয়াকান্দি উপজেলার বেশ কয়েকটি পাঁকা সড়ক কাদামাটিতে পরিণত হয়। সড়কগুলোতে গত কয়েকমাস ধরে রাস্তায় পড়ে থাকা ইটভাটার মাটি বৃষ্টিতে ভিজে পিচ্ছিল হয়ে মরণ ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে যানবাহনের চালক, যাত্রী ও সাধারণ মানুষ। চরম ক্ষোভ প্রকাশ করছেন সাধারণ মানুষও। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি দুর্ঘটনার সংবাদ পাওয়া গেছে।

 জানা গেছে, উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের সড়কের চিত্রই এখন এমন। বিশেষ করে বালিয়াকান্দি-নারুয়া, বালিয়াকান্দি-সোনাপুর, বালিয়াকান্দি-রাজবাড়ী সড়কের অবস্থা খুবই ভয়াবহ। দীর্ঘদিন ধরে জেলায় শতাধিক ইটভাটার মাটি ট্রাকে পরিবহন করায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এসব সড়কে রাস্তায় চলাচলকারী মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল, অটোভ্যান, ইজিবাইকসহ চলাচলরত পথচারীরা চরম ভোগান্তিতে পড়ে। 

 এদিকে ইটভাটার মালিকেরা জনদুর্ভোগকে পাত্তা না দিয়ে তাদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।  

 স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, বেশিরভাগ ইটভাটার মালিকরা ক্ষমতাসীন দলের লোক। যে কারণে রাস্তায় দুর্ভোগ সৃষ্টি করলেও তাদের কোন সমস্যা হয় না। বালিয়াকান্দির বেশিরভাগ ইটভাটায় প্রকাশ্যে কাট পুড়িয়ে ইট তৈরি করা হয়। এগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী স্থানীয়দের। 

 বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ বলেন, বালিয়াকান্দির বিভিন্ন রাস্তা এখন ভয়ংকর হয়ে উঠেছে। প্রশাসনের ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করেন তিনি। এছাড়া জনসাধারণের ঝুঁকিপূর্ণ রাস্তায় সতর্ক হয়ে চলাচল করার অনুরোধ করেন তিনি।

 বালিয়াকান্দি টিএমবি ব্রিকস ইটভাটার মালিক মোফাজ্জেল হোসেন মিঠু বলেন, ভোরের বৃষ্টিতে ভাটার সামনের সড়কে কাঁদা সৃষ্টি হয়। সড়ক ঝুকিপূর্ণ হয়ে যায়। আমি নিজ উদ্যোগে আমার নিজস্ব শ্রমিক দিয়ে রাস্তার কাঁদা অপসারণ করে বালু দিয়েছি। সব ইটভাটা এমন কাজ করছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি ‘না’ সূচক জবাব দেন।

 উপজেলা নির্বাহী অফিসার রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা ইটভাটা মালিকদের অনেকবার সর্তক করেছি। দ্রুতই ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। 

 
রাজবাড়ীর শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়নের পশ্চিম রূপপুর সরকারী প্রাথমিক স্কুল মাঠে বৈশাখী মেলা উদ্বোধন
মিজানপুরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দিনমজুর মোস্তফার পাশে সদর উপজেলা প্রশাসন
 গোয়ালন্দে ফোর রাউন্ড ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনালে দুরন্ত ক্রিকেট একাদশ চ্যাম্পিয়ন
সর্বশেষ সংবাদ