ঢাকা মঙ্গলবার, মার্চ ৫, ২০২৪
রাজবাড়ীতে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া প্রতারক চক্রের দুই সদস্য গ্রেপ্তার
  • মীর সামসুজ্জামান
  • ২০২৪-০২-১০ ১৪:২৯:০৩

 রাজবাড়ী ডিবি’র একটি দল অভিযান চালিয়ে পুলিশ, সেনাবাহিনী, আনসার ভিডিপি, মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে ও বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণা করে অসহায় চাকুরী প্রার্থীদের নিকট থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া দুই প্রতারক চক্রের ২জন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।

 এ বিষয়ে গতকাল ১০ই ফেব্রুয়ারী বেলা ১২টায় রাজবাড়ী পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার জি.এম. আবুল কালাম আজাদ

 গ্রেফতারকৃতরা হলো- রাজবাড়ী সদর উপজেলার উত্তর ভবানীপুর গ্রামের তাহের মন্ডলের ছেলে মোঃ শফিকুল ইসলাম(৩৬) ও নওগাঁ জেলার পোরশা থানার মৃত আকিমুদ্দিনের ছেলে মোঃ আবু তাহের ওরফে ফয়সাল(৪২)।

 সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার জানান, মোঃ শামিম শেখ নামের এক ব্যক্তি কনস্টেবল নিয়োগের জন্য আবেদন করেন। গত কয়েকদিন আগে আমরা খবর পাই রাজবাড়ীতে এই প্রত্যাশীর কাছে ১৪ লাখ টাকার বিনিময়ে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে এক প্রতারক চক্র প্রতারিত করার চেষ্টা করছে। প্রতারক চক্রের এক সদস্য প্রাথমিক ভাবে ৭ লাখ টাকা দিতে বলে। এই টাকাটা ব্যাংক একাউন্টে রেখে তাদের চেক দিতে হবে। চাকুরী প্রত্যাশী ছেলেটি ব্যাংক একাউন্টে টাকা রেখে প্রতারক চক্রকে চেক দেয়। পরে ওই চাকুরী প্রত্যাশী যখন বুঝতে পারে সে প্রতারণার স্বীকার হচ্ছে তখন সে পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করে। পরে ডিবির টিম অভিযান চালিয়ে গত ৯ই ফেব্রুয়ারী রাজবাড়ী শহরের মুঘল রেস্টুরেন্ট থেকে শফিকুল নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ঢাকায় অভিযান চালিয়ে এই চক্রের আরও এক সদস্য আবু তাহের ফয়সালকে গ্রেফতার করা হয়। তারা ২জন একসাথে এই প্রতারণার ফাঁদটি পাতে।

 এ সময় তাদের কাছ থেকে ৫৩টি সিভি, ১৩টি ভুয়া নিয়োগপত্র, ৫টি আইডি কার্ড, সাত পাতা ব্যাংকের চেক, ৯টি নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্প, ৫টি চেক বই, তিনটি এটিএম কার্ড, নিয়োগের বিজ্ঞাপন, হিসেব লেখা ডায়েরীসহ বিভিন্ন প্রকার মালামাল জব্দ করা হয়।

 পুলিশ সুপার জি.এম আবুল কালাম আজাদ আরো বলেন, কিছুদিন পরেই পুলিশের কনস্টেবল পদে বড় একটি নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে। যে কারণে অনেক প্রতারক চক্র সক্রিয় হয়েছে। আমরা অভিযান চালিয়ে পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া এই দুই প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছি। এই চক্রটি বিভিন্ন এলাকার চাকুরী প্রত্যাশীদের কাছ থেকে সরকারী বিভিন্ন দপ্তরের চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ৩০ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা হয়েছে। এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার সকলকে সচেতন হবার পরামর্শ দেন।

 সংবাদ সম্মেলনে রাজবাড়ীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ক্রাইম এন্ড অপস্) মুকিত সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর সার্কেল) মোঃ ইফতেখারুজ্জামান, ডিআইও-১ বিপ্লব দত্ত চৌধুরী, গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোঃ মনিরুজ্জামান খানসহ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 রাজবাড়ী সদর উপজেলার নতুন ইউএনও রবিউল আলমের দায়িত্ব গ্রহণ
কালুখালীর লাড়িবাড়ীতে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত মঙ্গল বিশ্বাস মৃত্যু
রাজবাড়ীতে দৈনিক সময়ের আলোর ৫ম বর্ষপূর্তি পালন
সর্বশেষ সংবাদ